নেদারল্যান্ডসের তরুণ মিডফিল্ডার ড্যারেন সিডোলের সই এসসি ইস্টবেঙ্গলে

স্লোভেনিয়া, অস্ট্রেলিয়া, ক্রোয়েশিয়া ও নাইজিরিয়ার পরে এ বার নেদারল্যান্ডস থেকে ফুটবলার নিয়ে আসার কথা ঘোষণা করল এসসি ইস্টবেঙ্গল। শুক্রবার তরুণ ডাচ মিডফিল্ডার ড্যারেন সিডোলের যোগ দেওয়ার কথা ঘোষণা করল তারা। আগামী এক বছরের জন্য তিনি চুক্তিবদ্ধ হয়েছেন এসসি ইস্টবেঙ্গলের সঙ্গে।

তাদের নতুন স্প্যানিশ কোচ মানুয়েল মানোলোর কোচিংয়ে স্প্যানিশ ক্লাব হারকিউলিস সিএফ-এ খেলতেন সিডোল। কলকাতার ক্লাবের দায়িত্ব নেওয়ার আগে মানোলো ওই ক্লাবেরই কোচ ছিলেন। তাই তাঁর প্রাক্তন দল থেকেই নিয়ে এলেন এই তরুণ মিডফিল্ডারকে।

মাত্র ২৩ বছর বয়সি এই ফুটবলার এর আগে খেলতেন স্পেনের দ্বিতীয় ডিভিশন ক্লাব কোর্দোবা সিএফ-এর হয়ে। তার আগের মরশুমে তিনি মানোলোর অধীনে ছিলেন হারকিউলিসে। নিজের আসল জায়গা ছাড়াও প্রয়োজনে সেন্টার ব্যাক ও সেন্ট্রাল মিডফিল্ডার হিসেবেও খেলতে পারেন তিনি।

আয়াক্সের যুব অ্যাকাডেমি থেকে উঠে আসা এই খেলোয়াড় ডাচ লিগের দ্বিতীয় ডিভিশনে আত্মপ্রকাশ করেন আয়াক্সের যুব দল ইয়ং আয়াক্সের হয়ে, ২০১৭-১৮ মরশুমে। সে বছর লিগের খেতাবও জেতে তাঁর দল। উয়েফা ইউথ লিগে আয়াক্স ২ দলেরও সদস্য ছিলেন সিডোল।

আয়াক্সের যুব দলে যোগ দেওয়ার আগে তিনি ফুটবল জীবন শুরু করেন এডিও ডেন হাগ ক্লাবে। ইয়ং আয়াক্সে খেলার সময় ইংল্যান্ডের ক্লাব রিডিং থেকেও ডাক পান তিনি। বুলগেরিয়ার প্রথম ডিভিশন ক্লাব এফসি আর্দা কার্ঝালির হয়েও খেলেছেন। নেদারল্যান্ডসের অনূর্ধ্ব ১৫, অনূর্ধ্ব ১৬ ও অনূর্ধ্ব ১৭ দলেরও সদস্য ছিলেন।

“এসসি ইস্টবেঙ্গল আমাকে এক নতুন সুযোগ এনে দিয়েছে”, ভারতের ঐতিহ্যবাহী ক্লাবে যোগ দেওয়ার পর বলেন সিডোল। তাঁর মতে, “ইউরোপের কয়েকটি ক্লাবে খেলেছি। অভিজ্ঞতাও হয়েছে অনেক। এখানেও শিখতে আগ্রহী। আমার বিশ্বাস ইন্ডিয়ান সুপার লিগে খেলে নিজেকে আরও উন্নত করে তুলতে পারব। স্পেনে কোচ মানোলোর কোচিংয়ে আগেও খেলেছি। এটা আমার একটা সুবিধা। আমাদের মধ্যে বোঝাপড়াটা ভাল। ফের ওর সঙ্গে কাজ করার অপেক্ষায় রয়েছি”।

আয়াক্সের যুব অ্যাকাডেমি থেকে উঠে আসা অনেকেই ডাচ ফুটবলে বিখ্যাত হয়ে উঠেছেন। তিনিও সেই অ্যাকাডেমিরই ফসল। এই প্রসঙ্গে সিডোল বলেন, “আমি আয়াক্স ইউথ সিস্টেম থেকে উঠে আসায় গর্বিত। এসসি ইস্টবেঙ্গলের নতুন সতর্থদের সঙ্গে সেই অভিজ্ঞতা ভাগ করে নেওয়ার চেষ্টা করব। এশিয়ার এই নামী ক্লাবের সমর্থকেরা খুব আবেগপ্রবণ বলে শুনেছি। গ্যালারিতে ওরা না থাকায় খারাপ লাগবে। তবে আমাদের মনের মধ্যে সমর্থকেরা নিশ্চয়ই থাকবে। এখন মাঠে নেমে পড়তে চাই”।

আসন্ন মরশুমের জন্য সম্প্রতি বিদেশি ফুটবলারদের নাম ঘোষণা করা শুরু করেছে এসসি ইস্টবেঙ্গল। এই তালিকায় ছিলেন স্লোভেনিয়ান মিডফিল্ডার আমির দার্ভিসেভিচ এবং দুই সেন্টার ব্যাক অস্ট্রেলিয়ান টমিস্লাভ মরচেলা ও ক্রোয়েশিয়ান ফ্রানিও পর্চে এবং নাইজিরিয়ান স্ট্রাইকার ড্যানিয়েল চিমা চুকুউ। এবার যোগ দিলেন ডিফেন্সিফ মিডফিল্ডার ড্যারেন সিডোল।

সম্প্রতি দলের নতুন কোচের নামও ঘোষণা করেছে এসসি ইস্টবেঙ্গল। লিভারপুলের কিংবদন্তি ফুটবলার রবি ফাউলারের জায়গায় নতুন কোচ হিসেবে যোগ দিচ্ছেন স্পেনের হোসে মানুয়েল ‘মানোলো’ ডিয়াজ ফার্নান্ডেজ। রিয়াল মাদ্রিদের যুব ও রিজার্ভ দল-সহ বিভিন্ন ক্লাবে ২০ বছর ধরে কোচের দায়িত্ব পালন করে আসা ডিয়াজ এ বার এসসি ইস্টবেঙ্গল দলের প্রধান কোচের দায়িত্বে।

ড্যারেনকে ফের তাঁর দলে পাওয়া নিয়ে মানোলো বলেছেন, ড্যারেনকে ফের আমার দলে পেয়ে ভালই লাগছে। ওর বয়সটা কম। খুব পরিশ্রমী। সারা মাঠ জুড়ে খেলতে পারে এবং যথেষ্ট কার্যকরী খেলোয়াড়। ওর সঙ্গে আমার অনেকক্ষণ কথা হয়েছে। ও মাঠে নামার জন্য ছটফট করছে

বিদেশিদের আগে অবশ্য ১৭ জন ভারতীয় ফুটবলারের নামও ঘোষণা করেছে কলকাতার ক্লাব। তাঁরা হলেন গোলকিপার অরিন্দম ভট্টাচার্য, ডিফেন্ডার আদিল খান, স্যারিনিও ফার্নান্ডেজ, রাজু গায়কোয়াড়, হীরা মন্ডল, জয়নার লরেন্সো, অঙ্কিত মুখার্জি, ড্যানিয়েল গোমস, মিডফিল্ডার অমরজিৎ সিং কিয়াম, জ্যাকিচন্দ সিং, রোমিও ফার্নান্ডেজ, সৌরভ দাস, সংপু সিঙসিট, লালরিনলিয়ানা হামতে এবং স্ট্রাইকার শুভ ঘোষ, নাওরেম মহেশ সিং ও থঙখোসিম সেম্বয় হাওকিপ।

আসন্ন হিরো আইএসএলে এসসি ইস্টবেঙ্গল প্রথম ম্যাচ খেলতে নামছে ২১ নভেম্বর জামশেদপুর এফসি-র বিরুদ্ধে। এর পরেই ২৭ নভেম্বর এটিকে মোহনবাগানের বিরুদ্ধে কলকাতা ডার্বি খেলতে নামবে তারা। যে ভাবে দল সাজাচ্ছে তারা, তাতে কলকাতা ডার্বি জমজমাট হয়ে ওঠার সমস্ত রসদ ভরপুর।

 

Your Comments

Your Comments