ভিয়েতনামে চ্যাম্পিয়ন হওয়ার মতোই দল ভারতের, মনে করেন হেড কোচ ইগর স্টিমাচ

চলতি সপ্তাহে ভারতীয় দল ভিয়েতনামে যে ত্রিদেশীয় টুর্নামেন্ট খেলতে চলেছে, সেই টুর্নামেন্টে সাফল্য পাওয়া নিয়ে আশাবাদী দলের হেড কোচ ইগর স্টিমাচ। তাঁর মতে, যে দল নিয়ে তিনি ভিয়েতনামে যাচ্ছেন, তাদের এই টুর্নামেন্ট জেতার ক্ষমতা আছে।

আগামী বছর এএফসি এশিয়ান কাপের মূলপর্বে খেলার যোগ্যতা অর্জন করেছে ভারত। গত জুনে কম্বোডিয়া, আফগানিস্তান, হংকংয়ের বিরুদ্ধে জিতে এই টুর্নামেন্টে খেলার যোগ্যতা অর্জন করে স্টিমাচের ভারত। এখন তারই প্রস্তুতি চলছে। এবং সেই প্রস্তুতিরই অঙ্গ এই ফ্রেন্ডলি টুর্নামেন্ট।

এশিয়ান কাপ বাছাই পর্বে ভারতীয় দল যে পারফরম্যান্স দেখায়, সেখান থেকে পাওয়া আত্মবিশ্বাস এই টুর্নামেন্টে কাজে লাগবে বলে মনে করেন স্টিমাচ। ফিফা ক্রমতালিকায় ভারতের চেয়ে ওপরে রয়েছে ভিয়েতনাম। ভারত যেখানে ১০৪ নম্বরে, সেখানে ভিয়েতনাম রয়েছে ৯৭-এ। তবে সিঙ্গাপুরের স্থান ১৫৯-এ। তা সত্ত্বেও ভারত এই সফরে সফল হতে পারে, মনে করেন স্টিমাচ।

“এই টুর্নামেন্ট জেতার ক্ষমতা আমাদের অবশ্যই আছে। তবে আমার মনে হয় খুব ছোটখাটো ব্যাপার দলগুলির মধ্যে তফাৎ তৈরি করে দেবে”, বলেছেন তিনি। ভিয়েতনামের প্রশংসা করে ভারতীয় দলের ক্রোয়েশিয়ান কোচ বলেন, “গত কয়েক বছরে ওরা যা পারফরম্যান্স দেখিয়েছে, তাতে ওরা এখন যথেষ্ট ছন্দে রয়েছে। ওরা ভাল দল এবং ঘরের মাঠে খেলবে। সেই জন্যই বোধহয় ওরা এই টুর্নামেন্টে ফেভারিট। তবে আমাদেরও যথেষ্ট সম্ভাবনা রয়েছে। কারণ, আমাদের দল তারুণ্যে ভরপুর”।  

যে ২৩ জনকে নিয়ে ভিয়েতনামে রওনা হচ্ছেন স্টিমাচ, তাঁদের বেশির ভাগই এই কয়েক দিন যার যার ক্লাবের প্রস্তুতি শিবিরে অনুশীলন করেছেন। এখন প্রতিটি ক্লাবই আসন্ন হিরো আইএসএলের জন্য নিজেদের দলকে প্রস্তুত করছে। প্রস্তুতি নিয়ে চিন্তিত না হলেও স্টিমাচের চিন্তিত খেলোয়াড়দের ফিটনেস নিয়ে। বলেন, “এশিয়ান কাপ বাছাই পর্বে যে ছন্দ আমরা পেয়েছি, তাতে আমরা যথেষ্ট আশা এবং ইতিবাচক মনোভাব নিয়েই মাঠে নামব। এই ব্যাপারগুলোই আমাদের সাহায্য করবে”।

ভারতীয় দলের বেশির ভাগ সদস্যের বয়স ২৫-এর নীচে, যা কোচকে আরও বেশি আশাবাদী করে তুলেছে। তাঁর বিশ্বাস, প্রতি বছর হিরো ইন্ডিয়ান সুপার লিগ থেকে আরও তরুণ ফুটবলার উঠে আসবেন ভারতীয় ফুটবলে। এই প্রসঙ্গে তিনি বলেন, “আমাদের সামনে যে লক্ষ্য ছিল, আমি খুশি যে, গত সাড়ে তিন বছরে সেই লক্ষ্য আমরা পূরণ করতে পেরেছি। আশা করি, এশিয়ান কাপ বাছাই পর্বে আমাদের খেলা ও মানসিকতা সবাইকে খুশি করতে পেরেছে। বিশেষ করে দলের তরুণরা যে আত্মবিশ্বাস নিয়ে খেলেছে, তাতে আশাবাদী হওয়ার যথেষ্ট কারণ রয়েছে। এখন বেশিরভাগেরই বয়স ২২-এর আশেপাশে। কয়েক বছরেই এরা আন্তর্জাতিক ফুটবলের প্রচুর অভিজ্ঞতা-সহ ২৫-এ পড়বে। এতে ভারতীয় ফুটবলেরই উন্নতি হবে”।

৪০ জনের প্রাথমিক দল থেকে ২৩ জনকে বেছে নিয়ে ভিয়েতনামে নিয়ে যাচ্ছেন স্টিমাচ। তবে তিনি মনে করেন, এই ৪০ জনের মধ্যে থেকেই ঘুরিয়ে ফিরিয়ে বিভিন্ন টুর্নামেন্টে সুযোগ পাবেন। ফলে যারা এই টুর্নামেন্টে সুযোগ পাচ্ছেন না, তাঁরা অন্যান্য ম্যাচে বা টুর্নামেন্টে সুযোগ পাবেন।

ভিয়েতনাম সফরে ভারতীয় স্কোয়াড: গোলকিপার- গুরপ্রীত সিং সান্ধু, ধীরজ সিং, অমরিন্দর সিং; ডিফেন্ডার- সন্দেশ ঝিঙ্গন, রোশন সিং নাওরেম, আনোয়ার আলি, আকাশ মিশ্র, চিঙ্গলেনসানা সিং, হরমনজ্যোৎ সিং খাবরা, নরেন্দর; মিডফিল্ডার- লিস্টন কোলাসো, আশিক কুরুনিয়ান, বিক্রম প্রতাপ সিং, উদান্ত সিং, অনিরুদ্ধ থাপা, ব্রেন্ডন ফার্নান্ডেজ, ইয়াসির মহম্মদ, জিকসন সিং, সহাল আব্দুল সামাদ, রাহুল কেপি, লালিয়ানজুয়ালা ছাঙতে; ফরোয়ার্ড- সুনীল ছেত্রী, ইশান পন্ডিতা।

ক্রীড়াসূচি: ২৪ সেপ্টেম্বর- সিঙ্গাপুর বনাম ভারত (বিকেল ৫.৩০ ভারতীয় সময়), ২৭ সেপ্টেম্বর- ভিয়েতনাম বনাম ভারত (বিকেল ৫.৩০)               

Your Comments

Your Comments