জানুয়ারির ‘হিরো’ চেন্নাইন এফসি-র সেরা তারকা ভাল্সকিস

একেবারে শেষ পর্বে চলে এসেছে হিরো আইএসএল ৬। সেরা চারের মধ্যে দু’টি দলের নাম নিশ্চিত হয়ে গেলেও এখনও আরও দু’টি দলের জায়গা পাকা হওয়া বাকি (রবিবারের ম্যাচের আগে পর্যন্ত)। তার জন্য চলছে তুমুল লড়াই। পাঁচ মাসের এই ভারতসেরা লিগের চার মাস কেটে গিয়েছে। চতুর্থ মাসে অর্থাৎ জানুয়ারিতে ফুটবলপ্রেমীদের হৃদয়ে ঝড় তুলেছেন বহু ফুটবলারই। তাদের মধ্যে সেরার শিরোপা জিতে নিলেন চেন্নাইন এফসি-র সেরা অস্ত্র নেরিজাস ভাল্সকিস। তিনিই জানুয়ারির ‘হিরো অফ দ্য মান্থ’।

প্রথম দু’মাসের মতো এ বারেও ভোটের মাধ্যমে বেছে নেওয়া হয়েছে সেরা তারকাকে। সেরার দৌড়ে পাঁচজন তারকা মনোনীত হয়েছিলেন। তাতে ভাল্সকিস ছাড়াও ছিলেন তাঁর সতীর্থ রাফায়েল শুলার ক্রিভেয়ারো, এটিকে এফসি-র গোলকিপার অরিন্দম ভট্টাচার্য, বেঙ্গালুরু এফসি-র সেরা তারকা সুনীল ছেত্রী ও এফসি গোয়ার হুগো আদনান বুমুস। ফুটবলপ্রেমীদের ও আমাদের বিশেষজ্ঞ প্যানেলের দেওয়া ভোটে সব মিলিয়ে ৪২.৭৭% পেয়ে সেরা নির্বাচিত হলেন ভাল্সকিস।

রবিবারই বেঙ্গালুরু এফসি-র বিরুদ্ধে গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচে দলের হয়ে মাঠে নামেন ভাল্সকিস। তার আগেই এই সিদ্ধান্ত জেনে যান তিনি। ৩২ বছর বয়সি এই লিথুনিয়ান ফরোয়ার্ড গত মাসে দুর্দান্ত ফর্মে ছিলেন। জানুয়ারিতে চারটি ম্যাচে তিনি করেন পাঁচ গোল। চেন্নাইন এফসি যে সেই মাসে পরপর তিনটি ম্যাচ জিতে প্রথম ছয়ের মধ্যে উঠে আসে, তার অনেকটাই কৃতিত্ব তাঁর। এ বারের লিগে ১২ গোল করে (রবিবারের ম্যাচের আগে পর্যন্ত) তিনি ইতিমধ্যেই সোনার বুটের দৌড়ে রয়েছেন। শুধু যে নিজে গোল করেছেন, তা নয়, চারটি গোল করিয়েছেনও আন্তর্জাতিক ফুটবল খেলে আসা এই ফরোয়ার্ড।

গত মাসে হায়দ্রাবাদ এফসি-র বিরুদ্ধে জোড়া গোল করেন ভাল্সকিস এবং ক্রিভেয়ারোকে একটি গোল করতে সাহায্যও করেন তিনি। নর্থইস্ট ইউনাইটেড এফসি-র বিরুদ্ধেও ক্রিভেয়ারো গোল করে দলকে এগিয়ে দেওয়ার পরে ভাল্সকিস ব্যবধান বাড়িয়ে নেন। জামশেদপুর এফসি-র বিরুদ্ধে ৪-১ জয়েও জোড়া গোল করেন ভাল্সকিস। ১৩ ও ৭৫ মিনিটের মাথায়। এমন ধারাবাহিক ভাবে গোল করে যাওয়ার (তিন ম্যাচে পাঁচ গোল) জন্যই সবচেয়ে বেশি ভোট পেয়ে গত মাসের সেরা তারকা নির্বাচিত হলেন চেন্নাইন এফসি তারকা।

চলতি হিরো আইএসএলে প্রথম দুই মাসেই হিরো অফ দ্য মান্থ খেতাব পেয়েছিলেন এটিকে এফসি-র দুই গোলমেশিন ডেভিড উইলিয়ামস ও রয় কৃষ্ণা। ডিসেম্বরে এফসি গোয়ার স্প্যানিশ ফরোয়ার্ড ফেরান কোরোমিনাস মাঠে ফিরেই তিনি জিতে নেন সেরার খেতাব। এ বার পেলেন আর এক আগ্রাসী ফরোয়ার্ড। লড়াইটা শেষ পর্যন্ত কোথায় গিয়ে থামে, সেটাই এখন দেখার।

ভোট গোনা হয় কী ভাবে?

ভক্তদের দেওয়া ভোটের ৫০ শতাংশ ও বিশেষজ্ঞদের ভোটের ৫০ শতাংশ নেওয়া হয় I

যেমন, কোনও এক মনোনীত ফুটবলার যদি ভক্তদের কাছ থেকে ৮০ শতাংশ ভোট পান, তা হলে তা ৪০ শতাংশ ধরা হয় I আর তিনি যদি ৬০ শতাংশ ভোট পান বিশেষজ্ঞদের কাছ থেকে, তা হলে তা ৩০ শতাংশ ধরা হয় I সব মিলিয়ে সেই ফুটবলারের প্রাপ্ত ভোট ধরা হয় ৪০+৩০= ৭০ শতাংশ I

ভক্ত ও বিশেষজ্ঞদের ভোট মিলিয়ে যে ফুটবলার সবচেয়ে বেশি শতাংশ ভোট পাবেন, তাঁকেই Hero of the Month বেছে নেওয়া হয় I

কোনও দু’জন ফুটবলারের প্রাপ্ত ভোট যদি একই হয়, তা হলে বিশেষজ্ঞরা যাঁকে বেশি ভোট দিয়েছেন, তাঁকেই সেরা বাছা হয় I

Your Comments

Your Comments