এটিকে মোহনবাগানের সঙ্গে দু’বছরের চুক্তি তরুণ মিডফিল্ডার গ্ল্যান মার্টিন্সের

আসন্ন হিরো ইন্ডিয়ান সুপার লিগে এটিকে মোহনবাগানের মাঝমাঠকে শক্তিশালী করে তুলতে যোগ দিলেন তরুণ মিডফিল্ডার গ্ল্যান মার্টিন্স। ২৬ বছর বয়সি গোয়ার এই ফুটবলার আগামী দুই মরশুমের জন্য চুক্তিবদ্ধ হয়েছেন বলে জানিয়েছে ক্লাব কর্তৃপক্ষ। ২০১৯-২০ মরশুমে হিরো আই লিগে চার্চিল ব্রাদার্সের হয়ে খেলা মার্টিন্স নিজের রাজ্যের ক্লাবের হয়ে ১৪টি ম্যাচ খেলেছিলেন। এ বার তিনি কলকাতার সবুজ-মেরুন বাহিনীর মাঝমাঠে নিয়মিত খেলোয়াড় হওয়ার দৌড়ে অন্যতম দাবিদার হয়ে উঠতে পারেন।

ফুটবলের এক রাজ্য থেকে আর এক ফুটবলপ্রেমী রাজ্যের অন্যতম জনপ্রিয় ক্লাবে যোগ দেওয়ার পরে মার্টিন্সের প্রতিক্রিয়া, “কলকাতায় এটাই আমার প্রথম মরশুম। হিরো আইএসএলেও। কলকাতার ফুটবলপ্রেমীদের উন্মাদনা আমি দেখেছি। সেই জন্যই এই চুক্তিতে সই করে আমি খুবই উত্তেজিত। মাঠে নামার জন্য আর অপেক্ষা করতে পারছি না। দলকে জেতানোই হবে আমার লক্ষ্য। আমাদের দল খুবই শক্তিশালী। সতীর্থদের সঙ্গে মাঠে নামার জন্য মুখিয়ে রয়েছি। আশা করি মরশুমটা সাফল্য দিয়েই শেষ করতে পারব”।

গোয়ার সেসা ফুটবল অ্যাকাডেমির ফসল মার্টিন্স ২০১৪-য় স্পোর্টিং ক্লুব দ্য গোয়ায় সই করে ফুটবল জীবন শুরু করেন। ভারত এফসি-র বিরুদ্ধে ম্যাচে তাঁর আই লিগ অভিষেক হয়। আই লিগে দুই মরশুমে স্পোর্টিংয়ের হয়ে ১৩টি ম্যাচ খেলেন তিনি। ২০১৯-২০ মরশুমের আগে তিনি চার্চিল ব্রাদার্সে যোগ দেন ও কড়া ট্যাকল ও বিভিন্ন ধরনের পাসিংয়ের জন্য বেশ জনপ্রিয় হয়ে ওঠেন। তাঁর পারফরম্যান্সের জন্যই দলের প্রধান কোচ বার্নার্দো তাভারেস মার্টিন্সকে নিয়মিত প্রথম এগারোয় রাখতেন। এটিকে মোহনবাগানের স্প্যানিশ কোচ আন্তোলিও লোপেজ হাবাস তাঁকে কী ভাবে দলের কাজে লাগান, সেটাই দেখার।

গতবারের হিরো আইএসএল খেতাব ধরে রাখতে ও এএফসি কাপে ভাল পারফরম্যান্স দেখানোর জন্য এ বার এটিকে মোহনবাগান বেশ শক্তিশালী দল গড়ার পরিকল্পনা নিয়েছে। মাঝমাঠে দুই বিদেশী হাভি হার্নান্ডেজ ও ব্র্যাডেন ইনম্যানকে পাশে পেতে পারেন মার্টিন্স। এ ছাড়া প্রণয় হালদার, মাইকেল রেজিনদের মতো দেশীয় খেলোয়াড়রা তো রয়েছেনই।

Your Comments

Your Comments