ফেভারিট তকমাটা চাপে ফেলে না, বরং উৎসাহ জোগায়: সুসাইরাজ

দু’বারের আইএসএল চ্যাম্পিয়ন এটিকে এফসি আজ ঘরের ঘরের মাঠে খেলতে নামছে প্রতিবেশী রাজ্যের শহর জামশেদপুরের দলের বিরুদ্ধে। ওই দল থেকেই এই মরশুমে আনা হয়েছে কন্যাকুমারীজাত ২৫ বছর বয়সি উইঙ্গার মাইকেল সুসাইরাজ-কে। ফর্মে থাকা সুসাইরাজ তাঁর প্রাক্তন ক্লাবের বিরুদ্ধে মাঠে নামার আগে indiansuperleague.com-কে একান্তে যা বললেন, তার কিছু অংশ তুলে ধরা হল।

আপনার চোটের অবস্থা কী?

এখন আমি একদম সুস্থ। মাঠে নামার কথা ভাবছি।

কোচিতে প্রথম ম্যাচে হারের পর, চেন্নাইয়ে গিয়ে জেতাটা কতটা গুরুত্বপূর্ণ ছিল?

কোচিতে যে ভুলগুলো হয়েছিল, সেগুলো থেকে শিক্ষা নিয়েছিলাম আমরা। চেন্নাই যাওয়ার আগে অনেক পরিশ্রম করেছিলাম। তাই ম্যাচটা জিতে ফিরেছি।

ডেভিড উইলিয়ামস, রয় কৃষ্ণাদের পাশে খেলতে কোনও অসুবিধা হচ্ছে না তো?

না, বরং ব্যাপারটা সহজ হয়ে উঠেছে। ওরা যখন আক্রমণে ওঠে, তখন বিপক্ষের ডিফেন্ডাররা দিশাহারা হয়ে যায়। আর তখনই আমি ওদের ডিফেন্ডারদের এড়িয়ে গোল এরিয়ায় ঢুকে পড়ি।

এটিকে-কে এই মরশুমে হিরো আইএসেল-এ ফেভারিটের তকমা দেওয়া হচ্ছে। এতে কি আপনাদের চাপ আরও বেড়ে গিয়েছে?

এটা একেবারেই চাপ নয় আমাদের কাছে। বরং এতে আমরা আরও উদ্বুদ্ধ হয়ে খেলতে পারছি।যখন জিততে থাকি, তখন পরের ম্যাচগুলোর জন্য আত্মবিশ্বাস আপনিই বেড়ে যায়। এটা আমাদের কাছে মোটিভেশন।

জামশেদপুর এফসি তো আপনার পুরনো ক্লাব। তাদের বিরুদ্ধে মাঠে নামার অনুভূতিটা কেমন?

ওদের বিরুদ্ধে খেলার সুযোগ পেলে ভালই লাগবে। জামশেদপুর এফসি-তে খেলার সময় যথেষ্ট ভাল সময় কাটিয়েছি। ওখানকার লোকজন খুবই ভাল। আমিও ভাল খেলেছিলাম। এখন আমার দল এটিকে। তাই সব ম্যাচের মতো এই ম্যাচেও জেতাই লক্ষ্য থাকবে আমাদের।

Your Comments

Your Comments