নসফ এফসি-র বিরুদ্ধে এটিকে মোহনবাগানের লড়াই সোজা হবে না, ধারণা হাবাসের

আসন্ন এএফসি কাপের ইন্টার জোনাল সেমিফাইনাল ম্যাচ যে মোটেই সোজা হবে না, তা কার্যত স্বীকার করে নিলেন এটিকে মোহনবাগানের স্প্যানিশ কোচ আন্তোনিও লোপেজ হাবাস। আগামী ২২ সেপ্টেম্বর উজবেকিস্তানের এফসি নসফের বিরুদ্ধে ইন্টার জোনাল সেমিফাইনালে খেলতে হবে হিরো আইএসএল রানার্স দলকে। শনিবার থেকে দুবাইয়ে তার প্রস্তুতি শুরু করে দিল সবুজ-মেরুন বাহিনী।

এএফসি কাপের প্রাক্তন চ্যাম্পিয়ন নসফ এফসি তাদের দেশের এক নম্বর লিগের রানার্স দল। প্লে-অফ ম্যাচে তুর্কমেনিস্তানের এফসি অহলকে ৩-২ গোলে হারিয়ে তারা ইন্টার জোনাল সেমিফাইনালে উঠেছে। তাদের দেশে গিয়ে তাদের হারানো যে মোটেই সহজ হবে না, তা বুঝেই গিয়েছেন বাস্তববাদী কোচ হাবাস। তাই বলেন, “এটা আমাদের মতোই আমাদের সমর্থকদের কাছেও খুব গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচ। পরিশ্রম ও সর্বশক্তি দিয়ে এই ম্যাচে নিজেদের সেরাটা দেওয়ার জন্য তৈরি হচ্ছি আমরা। তবে প্রতিপক্ষ যেহেতু খুব শক্তিশালী, তাই কাজটা খুব একটা সহজ হবে না। আমার মতে, এই ধরণের ম্যাচ হোম-অ্যাওয়ে ফরম্যাটে হওয়া উচিত”। শনিবার এটিকে মোহনবাগান মিডিয়াকে কথাগুলি বলেন তিনি।

শক্তিশালী প্রতিপক্ষের বিরুদ্ধে ম্যাচ বলেই নিজের দলকেও শক্তিশালী করে তুলতে চান হাবাস। তাই ইউরোয় খেলা ফিনল্যান্ডের ফুটবলার ইওনি কাউকোকে দলে ডেকে নিয়েছেন। স্প্যানিশ ডিফেন্ডার তিরিও এই দলের সঙ্গে যোগ দিচ্ছেন। অন্য দিকে, চোটের কারণে গত মরশুমের প্রায় পুরোটাই মাঠের বাইরে কাটানো উইং ব্যাক মাইকেল সুসাইরাজও যোগ দিয়েছেন উজবেকিস্তানগামী দলে। সঙ্গে অপর উইং ব্যাক প্রবীর দাসও।

সুসাইরাজের মতো প্রবীরও অসুস্থতার জন্য মলদ্বীপে এএফসি কাপের গ্রুপ পর্বে খেলতে যেতে পারেননি। তবে এই ম্যাচে তাঁকে মাঠে নামানোর পরিকল্পনা হাবাসের রয়েছে বলেই মনে করা হচ্ছে। গত কয়েক দিন কলকাতায় রয় কৃষ্ণা, ডেভিড উইলিয়ামস, প্রীতম কোটালদের সঙ্গে পুরোদমে অনুশীলন ও ফিজিক্যাল ট্রেনিং করেছেন এই দুই ভারতীয় তারকা এবং দলের ট্রেনাররা তাঁদের সম্পর্কে ইতিবাচক রিপোর্টই দিয়েছেন।

এটিকে মোহনবাগানের পুরো দলই এখন দুবাইয়ে। শনিবার থেকে তাদের এএফসি কাপ ম্যাচের প্রস্তুতি শুরু হয়েছে সেখানে। ছ’দিন দুবাইয়ে অনুশীলন করে হাবাস দল নিয়ে উড়ে যাবেন উজবেকিস্তানে। সেখানে চার দিন অনুশীলনের সঙ্গে  সেখানকার পরিবেশের সঙ্গে মানিয়ে নেওয়ার কাজটাও সেরে ফেলবেন এটিকে মোহনবাগানের ফুটবলাররা। তার পরে মাঠে নেমে পড়বে সবুজ মেরুন বাহিনী।        

Your Comments

Your Comments